পদ্মা সেতুর নাট খোলা সেই যুবকের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর

পদ্মা সেতুর নাটবল্টু খুলে ভাইরাল হওয়া টিকটকার বায়েজিদ তালহাকে গ্রেফতারের পর পটুয়াখালীর গ্রামের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার (২৭ জুন) বিকেল ৫টার দিকে বায়েজিদের নিজ বাড়ি পটুয়াখালীর লাউকাঠি ইউনিয়নের তেলিখালী গ্রামের এই হামলা চালানো হয়। এ ঘটনার বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে বাইজিদের মেঝ ভাবি হাদিসা বেগম বলেন, ২০-২৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাড়িতে উপস্থিত হয়ে হামলা চালায়। পরে সন্ত্রাসীরা ঘরে প্রবেশ করে মালামাল তছনছ করে। সন্ত্রাসীদের হাতে দেশীয় অস্ত্র দেখেই হাদিসা পাশের ঘরে গিয়ে আশ্রয় নেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ১০-১২টি মোটরবাইকযোগে ২০-২৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাড়িতে উপস্থিত হয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা রামদা, দা, কুড়াল দিয়ে ঘরের সামনের ও পশ্চিম পাশের টিনের বেড়া কুপিয়ে ভাঙচুর করে। আরও জানা যায়, আমরা হঠাৎ করে টিন ভাঙচুর ও কোপানোর শব্দ শুনে আমরা দৌড়ে এসে দেখি ২০-২৫ বছর বয়সি অনেকগুলো পোলাপান ঘরের টিন ভাঙচুর করছে। তাদেরকে অপরিচিত লাগছিল তাদেরকে আমরা চিনি না কিছুক্ষণ ভাঙচুর করে আবার মোটরসাইকেল যোগে চলে গেছে। তবে তারা পটুয়াখালী থেকে এসেছে আবার পটুয়াখালী চলে গেছে। পটুয়াখালী সদর থানার এসআই ছলিমুর রহমান জানান, ওসি সাহেবের নির্দেশে ঘটনাস্থলে এসে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছি। দুর্বৃত্তরা ঘরের টিন কুপিয়েছে, কিছু মালামাল ভাঙচুর করেছে। স্থানীয়দের সাথে কথা বলছি, বিস্তারিত পরে জানাতে পারব।

পদ্মা সেতুতে সেনাবাহিনীর টহল, থামতে দেয়া হচ্ছে না কাউকে পদ্মা সেতুর ওপর সেনাবাহিনীর টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী। সাধারণ মানুষ যেন পদ্মা সেতুতে চলাচলের সময় নির্ধারিত আইন মেনে চলে, তা নিশ্চিত করতে সোমবার থেকে অতিরিক্ত কড়াকড়ি আরোপ করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। খবর বিবিসি।

সোমবার সকাল থেকে সেতুতে মোটরসাইকেল প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। হেঁটেও উঠতে দেয়া হচ্ছে না মানুষকে। বিবিসি সংবাদদাতা জানান, রবিবার সেতুর ওপর যেমন চিত্র দেখা গেছে, সোমবার পরিস্থিতি তা থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। রবিবার বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে, সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হওয়া ভিডিওতে সেতুর ওপর রাস্তার পাশে মানুষকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেলেও সোমবার বলতে গেলে খালি ছিল রাস্তা।

সেতুর ওপর কোথাও কোথাও গাড়ি থামিয়ে মানুষজনকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই সেনাবাহিনীর টহল গাড়ি তাদের সরিয়ে দিচ্ছিল। পুরো সেতু এলাকাতেই সোমবারের চেয়ে বেশি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (২৫ জুন) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন। এরপর দিন রবিবার থেকে জনসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হয় স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এরপর অনেকে পদ্মা সেতু দেখতে যাচ্ছেন। কেউ কেউ নির্দেশনা অমান্য করে গাড়ি থেকে নেমে সেতুতে ছবি তোলেন। যানবাহনের বড় অংশ ছিলো মোটরসাইকেল।

এরইমধ্যে গতকাল সেতুর মাওয়া প্রান্তে গতকাল সন্ধ্যায় একটি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা হয়। দুর্ঘটনায় আহত দুজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনার পরপরই পদ্মা সেতুতে সোমবার (২৭ জুন) ভোর ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সেতু বিভাগ। সংশ্লিষ্ট এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সেতুতে অর্নিদিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে মোটরসাইকেল চলাচল।

পদ্মা সেতুতে গাড়ি থামিয়ে সেলফি তোলায় জরিমানা গতকাল রবিবার ভোর থেকে থেকেই সাধারণ যানবাহনের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে পদ্মাসেতু। প্রথমবারই সেতু দিয়ে পার হতে পেরে উচ্ছ্বসিত চালক ও যাত্রীরা। তবে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হলেও পদ্মা সেতুতে দাঁড়ানো বা ছবি তোলা নিষেধ। তবে প্রথম দিন থেকেই সেতুতে চলছে নিয়ম ভাঙার হিড়িক। গাড়ি থামিয়ে কেউ তুলছেন ছবি আবার কেউ সেতুতে সেতুর ওপর দাঁড়িয়ে করছেন টিকটক ভিডিও। সম্প্রতি পদ্মা সেতুতে অবৈধভাবে প্রাইভেটকার পার্কিং করে টিকটক ভিডিও বানানোর দায়ে ফখরুল আলম নামে এক যুবককে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে তাকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডও দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ সোমবার (২৭ জুন) পদ্মা সেতু চালুর দ্বিতীয় দিনে ওই যুবককে এ সাজা দেয়া হয়া। এদিন দুপুর পৌনে ২টায় পদ্মা সেতুর মাঝামাঝিতে সেতু কর্তৃপক্ষের নিয়ম ভাঙার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত এ জরিমানা করেন। এ সময় অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত যুবক তার অপরাধ স্বীকার করে জরিমানার টাকা পরিশোধ করেন। মূলত জনসাধারণের জন্য খুলে দেয়া্র পর থেকেই উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে পদ্মা সেতু পাড়ি দিচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা। তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার ৭/৮ জনের একটি গ্রুপ গাড়ি নিয়ে পদ্মা সেতুতে ঘুরতে আসে। এ সময় গাড়ি থামিয়ে সেতুর মাঝামাঝি স্থানে অবৈধ পার্কিং ও টিকটক ভিডিও করার দায়ে কয়েকজনকে জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে প্রথম ব্যক্তি হিসেবে ফখরুলকে জরিমানা অনাদায়ে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

বেলা দেড়টার দিকে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সাধারণ ও প্রবাসী কল্যাণ শাখার সহকারী কমিশনার মো. আশরাফুল কবীর এ জরিমানা করেন। তিনিবলেন, আমরা পদ্মা সেতুর মুন্সীগঞ্জ অংশে অবস্থান করছিলাম। আজ বেলা দেড়টার দিকে সেতুর মাঝখানে প্রাইভেটকার থামিয়ে সাত থেকে আটজন ব্যক্তি সেতুতে অবস্থান করেন। তিনি আরও বলেন, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য এবং অবৈধভাবে সেতুর উপর গাড়ি পার্কিং করার অপরাধে তাদের এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একইসঙ্গে তাদেরকে সতর্ক করে দেয়া হয়।

আশরাফুল কবির জানান, কুমিল্লা থেকে প্রাইভেটকারে করে তারা পদ্মা সেতু দেখতে আসেন। এরপর মাওয়া টোল প্লাজায় টোল দিয়ে সেতুতে ওঠেন। মাঝ সেতুতে প্রাইভেটকার থামিয়ে সেলফি তুলছিলেন তারা। ওই ব্যক্তিরা ভবিষ্যতে এমন কাজ করবেন না বলে স্বীকার করলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। তিনি আরও জানান, কেউ যাতে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য না করতে পারেন সে জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে নজরদারি করা হচ্ছে।

About admin

Check Also

সম্পর্কের পর বাতি জ্বালাতেই দেখেন অন্য কেউ!