বাঘের সাথে মায়ের লড়াই, ১ কিমি পিছু করে বাঁচিয়ে আনলেন নিজের বাচ্চাকে

এক মা তার বাচ্চার জন্য যে কোনো সীমা অবধি যেতে পারেন, যে কোনো বাধা অতিক্রম করতে পারেন। আর এর তাজা উদাহরণ পাওয়া গেছে ভারতের এক গ্রামে।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের বাড়িঝিরিয়া গ্রামের আট বছরের এক বালককে তুলে নিয়ে যায় একটি চিতাবাঘ। সিধি জেলার সঞ্জয় গান্ধী জাতীয় উদ্যানের পাশে অবস্থিত এই গ্রাম টি। সেই গ্রাম এরই বাসিন্দা কিরন নামক এক বাসিন্দা।

জানা যাচ্ছে রবিবার সন্ধ্যা নাগাদ তিনি রান্নার কাজে ব্যস্ত ছিলেন।তার তিন সন্তান বাইরে খেলছিল আচমকাই একটি চিতাবাঘ এসে তিন সন্তানের মধ্যে একটি আট বছরের ছেলেকে তুলে নিয়ে যায়।

ঘটনাটি দেখতে পেয়ে বাঘের পিছনে প্রায় ১ কিলোমিটার ছুটে যান সেই মহিলা। কিন্তু ততক্ষনে বাঘ সেই বাচ্চাটিকে নিয়ে জঙ্গলএর মধ্যে লুকিয়ে যায়। কিরন দেবি খুব সাহসের সাথে বাঘ কে যে কোনো ভাবে ভয় দেখাতে থাকে।

যার ফলে বাঘটি তার উপর পালটা আঘাত হানে অবশেষে লাঠির বাড়ি দিতেই চিতাবাঘটি বাচ্চাটিকে ফেলে জঙ্গলে পালিয়ে যায়। আহত অবস্থা তেই ছেলে কে উদ্ধার করে আনেন তিনি। মৃত্যুর সাথে লড়াই করে নিজের বাচ্চাকে এক মা যেভাবে জীবনদান করেছেন তা সকলকে অবাক করেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে এই মাকে প্রণাম জানিয়েছেন এবং অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এই ঘটনা সম্পর্কে তিনি বলেন ঝোপের আড়াল থেকে বেরিয়ে এসে তার ছেলের মুখে কামড়ে দিয়ে জঙ্গলে পালিয়ে যায় বাঘটি পরে প্রায় ১ কিলোমিটার ধাওয়া করে বাঘের সাথে রীতিমতো লড়াই শেষে ছেলেকে বাঘের মুখ থেকে ছিনিয়ে আনেন তিনি। এক মা এর এমন সাহসিকতার ঘটনা দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অবধি এই ঘটনা শুনে হতবাক হয়েছেনে এবং ওই মাকে প্রণাম জানিয়েছেন।

About admin

Check Also

সম্পর্কের পর বাতি জ্বালাতেই দেখেন অন্য কেউ!