রবিবার , জানুয়ারী 29 2023

তুমি না থাকলে বিশ্বকাপের সৌন্দর্য থাকে না: রুবেল

এবার দারুণ জয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলেও স্বস্তিতে নেই ব্রাজিল শিবির। দলের সবচেয়ে বড় তারকা নেইমারকে নিয়ে চিন্তিত সেলেসাওরা। টিওয়াইসি স্পোর্টসসহ একাধিক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, পুরো গ্রুপ পর্বে পাওয়া যাবে না নেইমারকে। অর্থাৎ ব্রাজিল নকআউটে গেলেই শুধু মাঠে নামতে পারবেন তিনি। এদিকে নেইমারের ইনজুরিতে খারাপ লেগেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের।

আজ শনিবার ২৬ নভেম্বর ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি বলেন, ‘আমি ছোটবেলা থেকেই ব্রাজিল টিমের সাপোর্টার। সত্যি নেইমারের জন্য খারাপ লাগছে। আমি কখনোই চাই না, শুধু নেইমার নয় যেকোনো ফুটবলার বিশ্বকাপের মতো এত বড় আসর থেকে ইনজুরির কারণে ছিটকে যাক।’

এ সময় নেইমারের প্রশংসা করে তিনি আরও লেখেন, ‘তুমি না থাকলে বিশ্বকাপের সৌন্দর্য থাকে না। নেইমার অনন্য এক ফুটবল প্রতিভার নাম।’ এদিকে সার্বিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে চোট পান নেইমার।

ম্যাচের ৭৯তম মিনিটেই মাঠ ছেড়ে যেতে হয় তাঁকে। সার্বিয়ান ফুলব্যাক মিলেনকোভিচের কড়া ট্যাকলে নেইমারের ডান পায়ের গোড়ালি মচকে যায়। এর প্রায় ১২ মিনিট পর নেইমারকে তুলে নেন ব্রাজিল কোচ।

ঈশ্বর যদি আমাকে কোনো দেশে আরেকবার জন্মানোর সুযোগ দেন, সেটা অবশ্যই ব্রাজিল: নেইমার

এবার ইনজুরিতে পড়ে বিশ্বকাপ স্বপ্নে ধাক্কা খেয়েছেন নেইমার। গ্রুপ পর্বে এই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারকে আর দেখা যাবে না বলে জানিয়েছেন সেলেসাওদের চিকিৎসক। এই অবস্থায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আবেগময় পোস্ট করেছেন নেইমার। ব্রাজিলের জার্সিতে খেলার সুযোগ পাওয়া তার কাছে কতটা কাঙ্ক্ষিত, সেই অনুভূতিরই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে সেই পোস্টে। নেইমার বলেছেন, ঈশ্বর যদি আমাকে কোনো দেশে আরেকবার জন্মানোর সুযোগ দেন, সেটা হবে অবশ্যই ব্রাজিল।

নেইমার সেই পোস্টে বলেন, ব্রাজিলের জার্সি গায়ে চাপিয়ে যে গর্ব ও ভালোবাসা আমি অনুভব করি, তা ব্যাখ্যাতীত। জীবনে কোনোকিছুই আমি সহজে পাইনি। স্বপ্ন ও লক্ষ্যকে অর্জন করার জন্য আমাকে সব সময় পরিশ্রম করতে হয়েছে। কারও ক্ষতি কামনা করিনি। বরং, অন্যদের প্রয়োজনে পাশে দাঁড়িয়েছি। আজকের দিনটি আমার ক্যারিয়ারে অন্যতম কঠিন সময়।

তিনি আরও বলেন, আর, এই অভিজ্ঞতা এলো আরও একটি বিশ্বকাপে। হ্যাঁ, আবারও ইনজুরিতে পড়েছি। চোটের কারণে মাঠের বাইরে থাকা সব সময়ই বিরক্তিকর। কষ্ট হচ্ছে। তবে আমি নিশ্চিত, ফিরে আসার সম্ভাবনা এখনও আছে। কারণ, নিজের দেশ, সতীর্থ এবং নিজেকে সাহায্য করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টাই আমি করবো।

সেই পোস্টের শেষে প্রকাশ পায় ফিরে আসার ব্যাপারে নেইমারের দৃঢ়তা। তিনি বলেন, শত্রুরা আমাকে এভাবে ছিটকে দেয়ার জন্য অনেক দিন অপেক্ষা করবে? আমি বলবো, সেটা কখনোই হবে না! অসম্ভবকে সম্ভব করা ঈশ্বরের সন্তান আমি। আর আমার বিশ্বাস অন্তহীন।

ভক্তদের উদ্দেশ্যে নেইমারের বার্তা

চলতি কাতার বিশ্বকাপে ব্রাজিলের প্রথম ম্যাচেই মারাত্মক চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন নেইমার। সার্বিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ে দারুণভাবে বিশ্বকাপ শুরু করেছে ব্রাজিল। কিন্তু তাদের সবচেয়ে বড় তারকাকে নিয়েই তৈরি হয়েছে জল্পনা। এমনও শোনা যাচ্ছে, সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে আগামী সোমবারের ম্যাচে হয়তো দেখা যাবে না নেইমারকে।

যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কিছুই জানানো হয়নি। এর মাঝেই নেইমার ভক্তদের চাঙ্গা করতে সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বারস্থ হয়েছেন। তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে দেখা যাচ্ছে পর্তুগিজ ভাষায় লেখা ‘আস্থা রাখুন’ শব্দটি।

নিচে শব্দটির ব্যখ্যাও লেখা আছে- ‘সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে এমন বিশ্বাস রাখা। এমনকি সেটি বিরুদ্ধ সময়েও। এটা নিশ্চিত যে সেরাটার দেখা পাওয়া এখনো বাকি। সময় হলেই দেখা পাওয়া যাবে। বিশ্বাস বা আস্থা মানুষ দেখতে পায় না, কিন্তু অনুভব করতে পারে।’

এদিকে সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিতে ৯ বার মারাত্মক ফাউলের শিকার হয়েছেন নেইমার। এর বাইরেও বাজে ট্যাকলের শিকার হয়েছেন। ৬৭ মিনিটে সার্বিয়ান ফুলব্যাক মিলেনকোভিচের কড়া ট্যাকলে নেইমারের ডান পায়ের অ্যাঙ্কেল মচকে যায়।

এদিকে ১৩ মিনিট পর মাঠ ছাড়ার পর দেখা যায় তার ডান পায়ের অ্যাঙ্কেল ফুলে গেছে। এরপর সাইডবেঞ্চে বসা নেইমারকে কাঁদতে দেখা গেছে। ব্রাজিল সুপারস্টারের সর্বশেষ আপডেট পেতে অপেক্ষা ছাড়া কিছু করার নেই ভক্তদের।

ব্রাজিলের সমর্থকরাই চায় নেইমারের পা ভাঙুক: রাফিনহা

বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নেইমারকে পাওয়া যায় না। তাই ব্রাজিলে তাকে নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে বিস্তর। অনেকেই এটা নিয়ে ব্যঙ্গ করছেন, নেইমারের ভাঙা পা নিয়ে করছেন উপহাস। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্রাজিলিয়ান সমর্থকদের অনেকেই লিখেছেন, নেইমারের খেলার যা ধরণ, তার পা ভাঙাই উচিত। আর এই বিষয়টি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না নেইমার-সতীর্থ রাফিনহা।

এদিকে সমালোচকদের উদ্দেশে রীতিমত ক্ষোভ ঝেড়েছেন ২৫ বছর বয়সী এই উইঙ্গার। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে তিনি লিখেছেন, ‘আর্জেন্টিনা সমর্থকরা মেসিকে গড মনে করে। পর্তুগালের সমর্থকরা রোনালদোকে কিং হিসেবে মান্য করে। আর ব্রাজিলিয়ান সমর্থকরা চায় নেইমারের পা ভাঙুক।’

তিনি আরও লিখেন, ‘দুঃখজনক! নেইমারের ক্যারিয়ারে সবচেয়ে বড় ভুল ব্রাজিলে জন্মগ্রহণ করা। এই দেশ তার মতো প্রতিভাকে পাওয়ার যোগ্য নয়।’ এদিকে গতকাল সার্বিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ব্রাজিল ২-০ গোলের জয় দিয়ে হেক্সা-মিশন শুরু করেছে।

কিন্তু ওই ম্যাচের শেষদিকে অ্যাঙ্কেলের চোট নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন নেইমার। চোট বেশ গুরুতর। গ্রুপপর্বে সুইজারল্যান্ড এবং ক্যামেরুনের বিপক্ষে ম্যাচে মাঠে নামতে পারবেন না ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। শঙ্কা আছে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ারও।

তামিমকে নিজের সাক্ষর করা জার্সি উপহার দিলেন নেইমার

গতকাল কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে সার্বিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পায় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। এ জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে নেইমার-রিচার্লিসনরা। ব্রাজিলের সেই ম্যাচ মাঠে বসে উপভোগ করেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। প্রিয় দল ব্রাজিলের জয়ে আনন্দ উল্লাসে মাতেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় এই ক্রিকেটার।

এদিন ম্যাচ শেষে ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমারের অটোগ্রাফসহ একটি জার্সিও উপহার পেয়েছেন তামিম। অটোগ্রাফসহ ব্রাজিলের জার্সি তুলে দেন নেইমারের পাবলিসিটির দায়িত্বে থাকা বাংলাদেশের ছেলে রবিন মিয়া। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে রোনালদোর খেলা দেখে ব্রাজিলের প্রেমে পড়েন তামিম ইকবাল। শুধু তামিমই নন তার পরিবারের প্রায় সবাই ব্রাজিলকে সাপোর্ট করে।

এর আগে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তামিমকে নেইমারের অটোগ্রাফ ব্রাজিলের জার্সি তুলে দিচ্ছেন রবিন এমনই দুই-তিনটি ছবি ভাইরাল হয়। জানা যায়, তামিম বিশ্বকাপ দেখতে যাচ্ছেন শুনে তার জন্য এই উপহারের আয়োজন করেন রবিন মিয়া, যিনি আবার নেইমারের প্রচারণার কাজে যুক্ত দীর্ঘদিন ধরে। সেই রবিনের হাত থেকেই জার্সি গ্রহণ করেন তামিম। এবারের মতো অবশ্য দেখা হয়নি ক্রিকেট ও ফুটবলের দুই সুপারস্টারের।

এদিকে রবিন মিয়ার বাড়ি বাংলাদেশের ভৈরবে। এক বিদেশি বন্ধুর মাধ্যমে পরিচয় হয় নেইমারের সাথে। এরপর থেকে নেইমারের সাথে কাজ করছেন তিনি। এতই ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন যে, বিশ্বকাপের জন্য কাতারে আসা নেইমারের পরিবারকে সব ধরনের লজিস্টিক সাপোর্ট দিচ্ছেন তিনি। ব্রাজিলিয়ান ফরওয়ার্ডের সব দেখভাল করছেন রবিন নিজেই।

গত ২১ অক্টোবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচের টিকিট পাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন তামিম। এরপর বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) ম্যাচটি সরাসরি দেখেন ওয়ানডে কাপ্তান। তামিমকে জার্সি তুলে দেয়ার পর দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন রবিন। তিনি জানান, সার্বিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে নেইমারকে চোট পেতে দেখে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তার পরিবারের সদস্যরা। এমনকি কেঁদে ওঠেন নেইমারের মা। যদিও তারা নেইমারের এসব চোটের ব্যাপারে অভ্যস্ত।

রবিন জানান, সার্বিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে নেইমারকে চোট পেতে দেখে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তার পরিবারের সদস্যরা। এমনকি কেঁদে ওঠেন নেইমারের মা। যদিও তারা নেইমারের এসব চোটের ব্যাপারে অভ্যস্ত। এর আগে গত ২০১৪ বিশ্বকাপে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়েন নেইমার। এবারের চোটে গ্রুপ পর্বে আর খেলা হচ্ছে না তার। এমনকি ব্রাজিল নকআউট পর্বে যদি ওঠে, নেইমারের আর মাঠে নামা হবে কি না তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

দুঃসংবাদ: নেইমারের পর ছিটকে গেলেন দানিলোও

এবার গোড়ালির চোটে কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে গেলেন তারকা ব্রাজিল ফরোয়ার্ড নেইমার ও দানিলো লুইজ দা সিলভা। ব্রাজিল জাতীয় দলের হয়ে রক্ষণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে যেনো এক আস্থার প্রতীক দানিলো। নেইমারের পাশাপাশি তারও ছিটকে যাওয়া ব্রাজিলিয়ান ভক্তদের জন্য এক হৃদয়বিদারক ঘটনাই বটে।

এদিকে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রে বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, গত বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর সার্বিয়ার বিপক্ষের ম্যাচে গোড়ালিতে লিগামেন্টে আঘাত পেয়েছেন নেইমার ও দানিলো। তাদের এমআরআইয়ে এ চিত্র ধরা পড়েছে।

রয়টার্সের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রাজিল গ্রুপ ‘জি’ পর্বে পরবর্তী প্রতিদ্বন্দ্বী সুইজারল্যান্ড এবং ক্যামেরুন। ব্রাজিল দলের ডাক্তার রদ্রিগো লাসমার বলেন, ‘তারা নিশ্চিতভাবে পরের ম্যাচটি মিস করবে এবং আমরা সতর্ক থাকবো। আমরা তাদের দ্রুত সুস্থ করার চেষ্টা করছি।

জানা যায়, নেইমার বেশ কয়েক বছর ধরে তার ডান পা এবং গোড়ালিতে সমস্যায় ভুগছিলেন। বৃহস্পতিবার আঘাতের পরেও মাঠ থেকে দেরিতে বের হওয়ায় ইনজুরির যন্ত্রণা দেয়া যায় নেইমারের চোখে-মুখে।

এর আগে গত ২০১৪ সালে নিজ দেশে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পিঠের ইনজুরিতে পড়ে আসর থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন নেইমার। তার অনুপস্থিতিতে সেমিফাইনালে জার্মানির বিপক্ষে স্বপ্নভঙ্গ হয় সেলেসাওদের। এবার গোড়ালির ইনজুরি আবারো শঙ্কা জাগাচ্ছিল। সেই শঙ্কাই যেন দুঃসংবাদ হয়ে এলো!

Check Also

ইনজুরিতে মেসি? ফাইনাল খেলা নিয়ে শঙ্কা!

এবার আর্জেন্টাইন শিবিরে রীতিমতো দুঃসংবাদ। চলতি কাতার বিশ্বকাপের ফাইনাল আগামী রবিবার ১৮ ডিসেম্বর। তার আগে …