টিকলো না নুসরাত-আলমের সংসার

আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। চানাচুর ব্যবসা, ডিস ক্যাবল ব্যবসা থেকে নিজেকে ইন্টারনেট দুনিয়ায় নিয়ে এসে বনে গেছেন হিরো আলম। দেশ থেকে বিদেশ কে না চিনেন এই হিরো আলমকে। নিজেকে ভাইরাল করাই যেন তার নেশা। কিছুদিন আগে ওপার বাংলার কাঁচা বাদাম খ্যাত শিল্পী ভূবন বাদ্যকারের সঙ্গে গান গেয়ে নতুন করে আবার আলোচনায় আসেন আলম।

সব কিছু ঠিকঠাক চলছিল, হঠাৎ করে বিডি২৪লাইভ ডটকমের হাতে এসে পৌঁছায় হিরো আলমের দ্বিতীয় স্ত্রী নুসরাত জাহান সাথী কর্তৃক তালাকের নোটিশ।

এ বিষয়ে নুসরাত জাহান সাথীর সাথে একান্ত আলাপ হয় বিডি২৪লাইভ’র। এসময় তিনি বলেন, ‘হিরো আলমের সাথে আমার বিয়ে হয় ২০১৯ সালে। এরপর থেকে আমাদের সংসার খুব ভালো চলছিল। আমি জানতাম তার আগের পক্ষের বউ, সন্তান রয়েছে। তবে আমার কাছে হিরো আলম বলেছিল তার প্রথম বউকে তালাক দিয়েছে। এরপর আমি খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি তা মিথ্যা। এবং নিয়োমিত যোগাযোগ রয়েছে সেই পরিবারে। এরপর থেকে আমার সাথে হিরো আলমের সংসার জীবনের কোন্দল শুরু হয়। শুধু এখানেই শেষ না, হিরো আলম নিজেকে পরিচিত করেছে যেভাবে ঠিক ভাবে একাধিক নারীর সাথে মেলামেশাও করে। আমি কিছু বলতে গেলে আমাকে তালাকের হুমকিও দিয়েছে।’

নুসরাত আরও বলেন, ‘আমি গত ৮মাস ধরে আমার বাবা মায়ের সাথে থাকছি। তবে আলমের সাথে কাজের সুবাদে একসঙ্গে কাজ করছি। আমাকে বিভিন্ন ভাবে হিরো আলম ভয়-ভী‌তি দেখিয়ে রাখতো। নিজেকে স্টার মনে করে সকলতে তুচ্ছ-তাছিল্ল করতো সে। এমনকি তার ভাড়া বাসায় আমার ৯ লাখ টাকা মুল্যের আসবাবপত্রও আমি রেখে এসেছি। আমি সংসার করার অনেক চেষ্টা করেছি। তার মধ্যে নারী নেশা বেশি। আমি আমার সম্মান গুছিয়ে সরে এসেছি।’

এ বিষয়ে বিডি২৪লাইভ থেকে হিরো আলমের সাথে যোগাযোগ করা হয়। এসময় তিনি বলেন, আমি এখনও তালাকের কাগজ হাতে পাইনি। লোক মাধ্যমে শুনতে পারছি আমাকে নুসরাত তালাক দিয়েছে। যতি তালাক দিয়ে থাকে আমার কিছু তো করার নাই। কাগজ হাতে পেলে বাকিটা বলতে পারবো।’

About admin

আমার পোস্ট নিয়ে কোন প্রকার প্রশ্ন বা মতামত থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন অথরা মেইল করতে পারেন admin@sottotv.com এই ঠিকানায়।