সাধারণ জ্ঞান – বিজ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর পর্ব – ২

বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারন জ্ঞান

✬প্রশ্ন : মটরগাড়ির হেড লাইটে কোন দর্পন ব্যবহার করা হয় ?
উত্তর : অবতল।
✬প্রশ্ন : কোন পদার্থ প্রকৃতিতে কঠিন, তরল, বায়বীয় অবস্থায় পাওয়া যায় ?
উত্তর : পানি।
✬প্রশ্ন : শূন্য ঘরের চেয়ে লোক ভর্তি ঘরের শব্দ কম হয় কেন ?
উত্তর : শূন্য ঘরে শব্দের শোষণ কম হয়।
✬প্রশ্ন : বর্ণান্ধ লোকেরা কোন রং বুঝতে পারে না ?
উত্তর : লাল , নীল, সবুজ।
✬প্রশ্ন : দৃশ্যমান আলোর ক্ষুদ্রতম তরঙ্গদৈর্ঘ্য কোন রঙের ?
উত্তর : বেগুনি।
✬প্রশ্ন : কোনটি তড়িৎ বিশ্লেষণ যোগ্য নয় ?
উত্তর : চিনি।
✬প্রশ্ন : পানিতে কিসের পরিমাণ কমে গেলে মাছ ও অন্যান্য জলজ প্রানী মারা যায় ?
উত্তর : O2
✬প্রশ্ন : কোনটি জীবাশ্ম জ্বালানি নয় ?
উত্তর : বায়োগ্যাস।
✬প্রশ্ন : গ্যালভানাইজেশন এর কাজে ব্যবহার করা হয় কোন ধাতু?
উত্তর : জিংক।
✬প্রশ্ন : ডিজিটাল টেলিফোনের প্রধান বৈশিষ্ট্য কি ?
উত্তর : ডিজিটাল সিগন্যালে বার্তা প্রেরণ।
✬প্রশ্ন : বালির প্রধান উপাদান কি ?
উত্তর : সিলিকা।
✬প্রশ্ন : স্বর্ণের খাদ বের করতে কোন এসিড ব্যবহার করা হয় ?
উত্তর : নাইট্রিক এসিড।
✬প্রশ্ন : স্টেইনলেস স্টীলে লোহার সাথে কোন ধাতু মিশানো হয় ?
উত্তর : নিকেল ও ক্রোমিয়াম।
✬প্রশ্ন : হাইড্রোজেনের পরমাণু তে কোনটি নেই ?
উত্তর : ইলেক্ট্রন।
✬প্রশ্ন : টুথপেস্টে ফ্লোরাইড ব্যবহার করা হয় কেন ?
উত্তর : এটি দাঁতের ক্ষয়রোধ করে।
✬প্রশ্ন : ওয়াটার গ্যাসের প্রধান উপাদানগুলো কি কি ?
উত্তর : হাইড্রোজেন ও কার্বন-মনোঅক্সাইড।
✬প্রশ্ন : কোনটি কাঁদানে গ্যাস হিসেবে ব্যবহার করা হয় ?
উত্তর : ক্লোরোপিক্রিন।

✬প্রশ্ন : টেস্টিং সল্ট – এর রাসায়নিক নাম কি ?
উত্তর : মনো সোডিয়াম গ্লুটামেট, আজিনামোটো।
✬প্রশ্ন : কোনটি সৌর কোষে ব্যবহৃত হয় ?
উত্তর : ক্যাডসিয়াম।
✬প্রশ্ন : ভূমি থেকে উপরে উঠলে শ্বাসকষ্ট হয় কেন ?
উত্তর : উপরে বায়ুর চাপ বেশি থাকে।
✬প্রশ্ন : আলট্রাসনোগ্রাফি কি ?
উত্তর : ছোট তরঙ্গদৈর্ঘ্যের শব্দের দ্বারা ইমেজিং।
✬প্রশ্ন : হিমোগ্লোবিনের কাজ কি ?
উত্তর : অক্সিজেন ও কার্বন ডাইঅক্সাইড বহন করা।
✬প্রশ্ন : কোন গ্যাস নিজে জ্বলে কিন্তু অন্যকে জ্বলতে সাহায্য করে না ?
উত্তর : হাইড্রোজেন।
✬প্রশ্ন : একজন মানুষ কি অবস্থায় পৃথিবীকে সবচেয়ে কম চাপ দেয় ?
উত্তর : শোয়া অবস্থায়।
✬প্রশ্ন : হীঁরা আঁধারে চক চক করে কেন ?
উত্তর : উচ্চ প্রতিসরাঙ্কের কারনে আলোর প্রতিসরণ ঘটে।
✬প্রশ্ন : কোন রঙের কাপে চা তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয় ?
উত্তর : কালো ।
✬প্রশ্ন : বিদ্যুৎ পরিবাহী তাপমাত্রা ও প্রস্থচ্ছেদ অপরিবর্তিত থাকলে দৈর্ঘ্য বাড়ালে রোধে কি ঘটবে ?
উত্তর : রোধ বাড়বে।
✬প্রশ্ন : বৈদ্যুতিক বাল্বের ফিলামেন্ট কোন ধাতু দিয়ে তৈরি হয় ?
উত্তর : টাংস্টেন।
✬প্রশ্ন : কোন বস্তুর ত্বরণ বলতে কি বুঝায় ?
উত্তর : সময়ের সাথে বেগ বৃদ্ধির হার।
✬প্রশ্ন : ছাতার কাপড়ের রং সাধারণ কালো হয় কেন ?
উত্তর : কালো রং তাপ শোষন করে বলে।
✬প্রশ্ন : কোনটি নবায়নযোগ্য শক্তির উৎস ?
উত্তর : সূর্যরশ্মি।
✬প্রশ্ন : দৈর্ঘ্য প্রসারণ গুনাংক কোন বিষয়ের উপর নির্ভর করে ?
উত্তর : তাপমাত্রা স্কেল, বস্তুর প্রকৃতি।

বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারন জ্ঞান

✬প্রশ্ন : বদির লোকদের কানে শোনার যন্ত্রের নাম কি?
উত্তর : ইয়ার ট্রাম্পেট।
✬প্রশ্ন : পানামার বিমান সংস্থার নাম কি?
উত্তর : কোপা।
✬প্রশ্ন : ঘাস কাটার যন্ত্রের নাম কি?
উত্তর : লন মেয়ার।
✬প্রশ্ন : বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রাণীর নাম কি?
উত্তর : নীল তিমি।
✬প্রশ্ন : কম্পিউটার সিস্টেম প্রসেসর কে কি বলা হয়?
উত্তর : ব্রেইন।
✬প্রশ্ন : পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তির ফুসফুসে বায়ু ধারণ ক্ষমাত কত?
উত্তর : ৬ লিটার।
✬প্রশ্ন : আকাশ নীল দখেয় কেন?
উত্তর : নীল আলোর বিক্ষেপণ বেশি বলে।
✬প্রশ্ন : লিথিয়াম কি ধরণের ধাতু?
উত্তর : সবচেয়ে হালকা ধাতু।
✬প্রশ্ন : ভূমিকম্প নির্ণায়ক যন্ত্রের নাম কি?
উত্তর : সিসমোগ্রাফ।
✬প্রশ্ন : স্বর্ণের খাত বের করতে কোন এসিড ব্যবহার করা হয়?
উত্তর : নাইট্রিক এসিড।
✬প্রশ্ন : রঙ্গিন টেলিভিশন কত সালে আবিষ্কার হয়?
উত্তর : ১৯২৮ সাল।
✬প্রশ্ন : রঙিন টেলিভিশন হতে ক্ষতিকর কোন রশ্মি বাহির হয়?
উত্তর : গামা রশ্মি।
✬প্রশ্ন : রেফ্রিজারেটরে কোন গ্যাস থাকে?
উত্তর : ফ্রেয়ন।
✬প্রশ্ন : সমুদ্রের গভীরতা মাপা হয় কিসের সাহায্যে?
উত্তর : ফ্যাদোমিটার।
✬প্রশ্ন : শব্দের বেগ কোন মাধ্যমে বেশি?
উত্তর : কঠিন মাধ্যমে।
✬প্রশ্ন : সবচেয়ে মূল্যবান ধাতু কি?
উত্তর : প্লাটিনাম।
✬প্রশ্ন : সর্বত্র দিন রাত্রি সমান কবে?
উত্তর : ২১ শে মার্চ ও ২৩ শে সেপ্টেম্বর।
✬প্রশ্ন : পৃথিবীর ছাদ বলা হয় কাকে?
উত্তর : পামির মালভূমিকে।
✬প্রশ্ন : পানির তলায় মাটি কাটার যন্ত্রের নাম কি?
উত্তর : ড্রেডলার।
✬প্রশ্ন : বৈদ্যতিক বিলের হিসাব কিভাবে করা হয়?
উত্তর : কিলোওয়াট ঘণ্টায় ।
✬প্রশ্ন : কোন দেশকে সূর্যদয়ের দেশ বলা হয়?
উত্তর : জাপান কে।
✬প্রশ্ন : বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সুপার কম্পিউটারের নাম কি?
উত্তর : তিহানে-১।
✬প্রশ্ন : অর্থনীতিতে প্রথম নোবেল দেওয়া হয় কবে?
উত্তর : ১৯৬৯ সালে।
✬প্রশ্ন : সবচেয়ে বড় ঘাস কি?
উত্তর : বাঁশ।

✬প্রশ্ন : কেচো শ্বাস প্রশ্বাস চালায় কিসের সাহায্যে?
উত্তর : ত্বকের সাহায্যে।
✬প্রশ্ন : মেরুদন্ডের প্রতিটি অস্থিকে কি বলে?
উত্তর : কশেরুকা।
✬প্রশ্ন : বৃষ্টির ফোটা গোলাকার হয় কেন?
উত্তর : পৃষ্টটানের কারণে।
✬প্রশ্ন : তামা ও দস্তার মিশ্রণে কি উৎপন্ন হয়?
উত্তর : পিতল।
✬প্রশ্ন : চাঁদে শব্দ করলে শোনা যায় না কেন?
উত্তর : চাঁদে কোন বায়ুমন্ডল নেয় বলে।
✬প্রশ্ন : চাঁদের সবচেয়ে বড় গর্তের নাম কি?
উত্তর : ক্লেভিয়াস।
✬প্রশ্ন : কাচা কলা কি দিয়ে পাকানো হয়?
উত্তর : ইলিথিন(C2H4) দিয়ে।
✬প্রশ্ন : বৈদ্যতিক বালভের ফিলামেন্ট কোন ধাতু দিয়ে তৈ্রী?
উত্তর : টাংস্টেন।
✬প্রশ্ন : হাড় ও দাত কে মজবুত করে কি?
উত্তর : ফসফরাস।
✬প্রশ্ন : উড়োজাহাজের গতি নির্ণায়ক যন্ত্রের নাম কি?
উত্তর : ট্যাকোমিটার।
✬প্রশ্ন : মানুষের চোখের দর্শনাভূতির স্থায়িত্বকাল কত?
উত্তর : ০.১ সেকেন্ড।
✬প্রশ্ন : চুনের পানি বা চুনের সংকেত কি?
উত্তর : Ca(OH)
✬প্রশ্ন : বিশ্বের বৃহত্তম লাইব্রেরির নাম কি?
উত্তর : লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস।
✬প্রশ্ন : পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধে সবচেয়ে বড়দিন কবে?
উত্তর : ২১ শে জুন।
✬প্রশ্ন : পৃথিবীর দক্ষিন গোলার্ধে সবচেয়ে বড়দিন কবে?
উত্তর : ২২ শে ডিসেম্বর।
✬প্রশ্ন : “ক্যাম্পনামা” কোন দেশের কারাগার?
উত্তর : ইরাক।
✬প্রশ্ন : জোয়ারের কত সময় পর ভাটার সৃষ্টি হয় ?
উত্তর : ৬ ঘন্টা ১৩ মিনিট পর।
✬প্রশ্ন : কোন তিন মূখ্য বর্ণের সমন্বয়ে অন্যান্য বর্ণ ঘঠিত হয় ?
উত্তর : লাল, নীল ও সবুজ তথা RGB।

ভিন্ন বিষয়ের জনক জেনে নিন

✬ অংকের জনক — আর্কিমিডিস

✬ অপরাধ বিজ্ঞানের জনক — ল্যামব্রাসো।

✬ অর্থনীতির জনক — এডামস্মিথ।

✬ অলিম্পিকের জনক — ব্যারন পিয়েরে দ্য কুবার্তে।

✬ আধুনিক শিক্ষার জনক — সক্রেটিস।

✬ আমলাতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনার জনক — ম্যাক্স ওয়েবার।

✬ আধুনিক শিক্ষার জনক — সক্রেটিস।

✬ আধুনিক অর্থনীতির জনক — পল স্যামুয়েলসন।

✬ আধুনিক গণতন্ত্রের জনক — জন লক।

✬ আধুনিক জোর্তি বিজ্ঞানের জনক — কোপার্নিকাস।

✬ আধুনিক মনোবিজ্ঞানের জনক — সিগমুন্ড ফ্রয়েড।

✬ আধুনিক রাষ্ট্রবিজ্ঞানের জনক — নিকোলো মেকিয়াভেলী।

✬ আধুনিক রসায়নের জনক — জন ডাল্টন।

✬ আধুনিক পদার্থ বিজ্ঞানের জনক — আলবার্ট আইনস্টাইন।

✬ আধুনিক বিজ্ঞানের জনক — রজার বেকন।

✬ আধুনিক কম্পিউটারের জনক — চালর্স ব্যাবেজ।

✬ আধুনিক ল্যাপটপের জনক — বাল মেগারিজ।

✬ আমেরিকার জনক — জর্জ ওয়াশিংটন।

✬ ইংরেজি নাটকের জনক — শেক্সপিয়র।

✬ ইংরেজী কবিতার জনক — খিউ ফ্রে চসার।

✬ ইতিহাসের জনক — হেরোডোটাস।

✬ ইন্টারনেটের জনক — ভিনটন জি কার্ফ।

✬ WWW এর জনক — টিম বার্নাস লি ।

✬ ই-মেইল এর জনক — রে টমলি সন।

✬ ইন্টারনেট সার্চইঞ্জিনের জনক — এলান এমটাজ ।

✬ উদ্ভিদ বিজ্ঞানের জনক — থিওফ্রাস্টাস।

✬ এনাটমির জনক — আঁদ্রে ভেসালিয়াস।

✬ ক্যালকুলাসের জনক — আইজ্যাক নিউটন।

✬ গণিতশাস্ত্রের জনক — আর্কিমিডিস।

✬ চিকিৎসা বিজ্ঞানের জনক — হিপোক্রেটিস।

✬ জীবাণুবিদ্যার জনক — লুই পাস্তুর।

✬ জীব বিজ্ঞানের জনক — এরিস্টটল।

✬ জ্যামিতির জনক — ইউক্লিড।

✬ দর্শনশাস্ত্রের জনক — সক্রেটিস।

✬ প্রাণি বিজ্ঞানের জনক — এরিস্টটল।

✬ বংশগতি বিদ্যার জনক — গ্রেগর জোহান মেন্ডেল।

✬ বংশগতির জনক — গ্রেগর মেন্ডেল।

✬ বাংলা গদ্য ছন্দের জনক — রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

✬ বাংলা উপন্যাসের জনক — বঙ্কিম চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।

✬ বাংলা কবিতার জনক — মাইকেল মধু সূদন দত্ত।

✬ বাংলা গদ্যের জনক — ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যা সাগর।

✬ বাংলা নাটকের জনক — দীন বন্ধু মিত্র।

✬ বাংলা গজলের জনক — কাজী নজরুল ইসলাম।

✬ বাংলা সনেটের জনক — মাইকেল মধু সুদন দত্ত।

✬ বাংলা মুক্তক ছন্দের জনক — কাজী নজরুল ইসলাম।

✬ বাংলা চলচিত্রের জনক — হীরালাল সেন।

✬ বিজ্ঞানের জনক — থেলিস।

✬ বিবর্তনবাদ তত্ত্বের জনক — চার্লস ডারউইন।

✬ বীজগণিতের জনক — আল-খাওয়ারিজমি।

✬ ভূগোলের জনক — ইরাতেস্থিনিস।

✬ পদার্থ বিজ্ঞানের জনক — আইজ্যাক নিউটন।

✬ মনোবিজ্ঞানের জনক — উইলহেম উন্ড।

✬ রাষ্ট্রবিজ্ঞানের জনক — এরিস্টটল।

✬ রসায়নের জনক — জাবির ইবনে হাইয়ান।

✬ শারীরবিদ্যার জনক — উইলিয়াম হার্ভে।

✬ হিসাব বিজ্ঞানের জনক — লুকাপ্যাসিওলি।

✬ শ্রেণীকরণ বিদ্যার জনক — ক্যারোলাস লিনিয়াস।

✬ সনেটের জনক — পের্ত্রাক।

✬ সামাজিক বিবর্তনবাদের জনক — হার্বাট স্পেন্সর।

✬ সমাজবিজ্ঞানের জনক — অগাষ্ট কোঁৎ।

✬ ফেসবুক এর জনক — মার্ক জুকারবার্গ।

✬ চিকিৎসা বিজ্ঞানের জনক — ইবনে সিনা।

✬ হোমিওপ্যাথির জনক — হ্যানিম্যান।

✬ মেডিসিনের জনক — হিপোক্রটিস।

✬ কম্পিউটার মাউসের জনক — ডগলাস এঙ্গেলবার্ট।

✬ মোবাইল ফোনের জনক — মার্টিন কুপার।

✬ গুগলের জনক — সার্জেই বিন।

✬ ফেসবুকের জনক — মার্ক জুকারবার্গ।

✬ টুইটারের জনক — জ্যাক ডোরসেই।

✬ ই-বুকের জনক — মাইকেল এস হার্ট।

বিজ্ঞান এর বিখ্যাত আবিষ্কার ও আবিষ্কারক এর নাম ।

✬ অক্সিজেন আবিস্কার করেন — জে বি প্রিস্টলি।

✬ অণুবীক্ষণ যন্ত্র আবিস্কার করেন– জেড ভ্যানসেন।

✬ ইউরিয়া আবিস্কার করেন — উহলার।

✬ ইউরেনিয়াম আবিস্কার করেন — ক্লাপ্রথ।

✬ উদ্ভিদের প্রাণের অস্তিত্ব আবিষ্কার করেন — জগদীশচন্দ্র বসু।

✬ ইলেক্ট্রন আবিস্কার করেন — স্যার জোসেফ জন থমসন।

✬ এক্সরে আবিস্কার করেন — ডব্লিউ কে রন্টজে।

✬ এন্টিসেপ্ট চিকিত্সা আবিস্কার করেন — লিস্টার লর্ড বেন্টিং।

✬ এয়ার কন্ডিশনার আবিস্কার করেন — ডব্লিউ এইচ ক্যারিয়ার।

✬ এরোপ্লেন আবিস্কার করেন — অরভিল ও উইলভার রাইট।

✬ ওজোন আবিস্কার করেন — স্কোনবীনি।

✬ কলেরা বেসিলাস আবিস্কার করেন — রবার্ট কচ।

✬ কৃত্রিম জিন আবিস্কার করেন — হরগোবিন্দ খোরানা।

✬ কৃত্রিম তেজস্ক্রিয় মৌল আবিস্কার করেন — জুলিও কুরি।

✬ কোষ আবিস্কার করেন — রবার্ট হুক।

✬ কোষের নিউক্লিয়াস আবিস্কার করেন — রবার্ট ব্রাউন।

✬ ক্যামেরা আবিস্কার করেন — জর্জ ইস্টম্যান।

✬ ক্রোমোজোম আবিস্কার করেন — স্টাসবুর্গার।

✬ ক্লোরিন আবিস্কার করেন — শীলে।

✬ ক্লোরোফরম আবিস্কার করেন — সিম্পসন ও হ্যারিসন।

✬ গতির সূত্র আবিস্কার করেন — আইজ্যাক নিউটন।

✬ গ্যালভানোমিটার আবিস্কার করেন — আন্ডার মেরি আম্পিয়ার।

✬ চলচ্চিত্র যন্ত্র আবিস্কার করেন — টমাস আলভা এডিসন।

✬ জলাতঙ্ক রোগের চিকিৎসা আবিস্কার করেন — লুই পাস্তুর।

✬ জলাতঙ্ক রোগের প্রতিষেধক আবিস্কার করেন — লুই পাস্তুর।

✬ টাচস্ক্রিন মোবাইল ফোন আবিষ্কার করেন — স্টিভ জবস।

✬ টেলিগ্রাফ আবিস্কার করেন — এফ বি মোর্স।

✬ টেলিফোন আবিস্কার করেন — আলেকজান্ডার গ্রাহামবেল।

✬ টেলিভিশন আবিস্কার করেন — জন লজি বেয়ার্ড।

✬ টেলিস্কোপ আবিস্কার করেন — হ্যান্স লিপারসি।

✬ ডাবল হেলিক্স DNA আবিস্কার করেন — ওয়াটসন ও ক্রিক।

✬ ডায়নামো আবিস্কার করেন — মাইকেল ফ্যারাডে।

✬ ডি ডি টি আবিস্কার করেন — জিডলার।

✬ ডিজেল ইঞ্জিন আবিস্কার করেন — রুডলফ।

✬ ডিনামাইট আবিস্কার করেন — আলফ্রেড নোবেল।

✬ ডিপথেরিয়া প্রতিষেধক আবিস্কার করেন — ভন ভেহরিং।

✬ ড্রাইসেল আবিস্কার করেন — জর্জেস লেকল্যান্স।

✬ তড়িত্ বিশ্লেষণ আবিস্কার করেন — ফ্যারাডে।

✬ থার্মোমিটার আবিস্কার করেন — গ্যালিলিও গ্যালিলি।

✬ নিউট্রন আবিস্কার করেন — জেমস চ্যাডউইক।

✬ পচন নিবারক অস্ত্রোপচার আবিস্কার করেন — লিসার।

✬ পরম শূন্যতার স্কেল আবিস্কার করেন — কেলভিন

✬ পারমাণবিক বিভাজন প্রক্রিয়া আবিস্কার করেন — অটোহ্যান

✬ পারমাণবিক সংখ্যা আবিস্কার করেন — মোঁসলে

✬ পারমানবিক বোমা আবিষ্কার করেন — আলফ্রেড নভেল।

✬ পেট্রোল ইঞ্জিন আবিস্কার করেন — নিকোলাস অটো

✬ পেনিসিলিন আবিস্কার করেন — আলেকজান্ডার ফ্লেমিং

✬ পোলিও টিকা আবিস্কার করেন — জোনাস ই স্যাক।

✬ প্রোটন আবিস্কার করেন — রাদারফোর্ড।

✬ প্লুটোনিয়াম আবিস্কার করেন — সিবোর্গ।

✬ পৃথিবী সূর্যের চারিদিকে ঘুরছে, এ তথ্য আবিষ্কার করেন — গ্যালিলিও।

✬ ফনোগ্রাফ আবিস্কার করেন — টমাস আলভা এডিসন।

✬ ফ্লপি ডিস্ক আবিস্কার করেন — আইবিএম কোম্পানি।

✬ বংশগতির সূত্র আবিস্কার করেন — গ্রেগর মেন্ডেল।

✬ বাই সাইকেলের জনক — কার্ল ভ্যান ড্রেইস।

✬ বল পয়েন্ট আবিস্কার করেন — জন জেলাউড।

✬ বসন্ত টিকা আবিস্কার করেন — জেনার।

✬ বসন্তের টিকা আবিস্কার করেন — এডওয়ার্ড জেনার।

✬ বায়ু নিষ্কাশন যন্ত্র আবিস্কার করেন — অটোভন গেরিক।

✬ বার্নার আবিস্কার করেন — রবার্ট বুনসেন।

✬ বাষ্পীয় ইঞ্জিন আবিস্কার করেন — জেমস ওয়াট।

✬ বিদ্যুৎ আবিস্কার করেন — উইলিয়াম গিলবার্ট।

✬ বিবর্তনের সূত্র আবিস্কার করেন — চার্লস ডারউইন।

✬ বিসিজি টিকা আবিস্কার করেন — ক্যালসাট ও গুয়োচিন (যক্ষার টিকা)।

✬ বৈদ্যুতিক বাতি আবিস্কার করেন — টমাস আলভা এডিসন।

✬ ব্যাক্টেরিয়া আবিস্কার করেন — লিউয়েন হুক।

✬ ব্যারোমিটার আবিস্কার করেন — ইভারজেলিস্টটরসিলি।

✬ ব্লাড গ্রুপ আবিস্কার করেন — ল্যান্ড স্টেইনার।

✬ ভাইরাস আবিস্কার করেন — চার্ল আই ইকলুজ।

✬ ভিটামিন এ বি ও ডি আবিস্কার করেন — মেকুলাস।

✬ মাইক্রোফোন আবিস্কার করেন — আলেকজান্ডার গ্রাহাম বেল।

✬ ম্যালেরিয়া জীবাণু আবিস্কার করেন — রোনাল্ড রস।

✬ মোবাইল ফোনের আবিষ্কারক — মার্টিন কুপার।

✬ মোটর সাইকেল আবিষ্কার করেন — এডওয়ার্ড বাটলার।

✬ যক্ষার জীবাণু আবিস্কার করেন — রবার্ট কচ।

✬ রক্ত সঞ্চালন আবিস্কার করেন — উইলিয়াম হার্ভে।

✬ রাডার আবিস্কার করেন — এ এইচ টেলর এবং লিও সি ইয়ং।

✬ রিভলভার আবিস্কার করেন — স্যামুয়েল কোল্ট।

✬ রেডিও আবিস্কার করেন — জি মার্কনি।

✬ রেডিয়াম আবিস্কার করেন — ম্যাডম কুরি ও পিয়েরে কুরি।

✬ রেল ইঞ্জিন আবিস্কার করেন — জর্জ স্টিভেনসন।

✬ লেজার আবিস্কার করেন — টি এইচ মাইম্যান।

✬ সার্চ ইঞ্জিন google আবিষ্কার করেন — ল্যারি পেইজ এবং সার্জেই ব্রিন।

✬ সিডি আবিস্কার করেন — আর সি এ।

✬ সৌরজগত আবিস্কার করেন — এন কপার্নিকাস।

✬ হাইড্রোজেন আবিস্কার করেন — হেনরি ক্যাভেন্ডিস।

✬ হামের টিকার আবিস্কার করেন — এনভারস এবং জন পিবলস।

বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারন জ্ঞান

✬ ইন্টারনেট চালু হয় — 1969 সালে
✬ ইউরি গ্যাগরিন মহাশূন্যে যান — 1961 সালে
✬ পৃথিবীতে সবচেয়ে শক্ত পদার্থ — হীরক।
✬ সবচেয়ে হালকা মৌল — হাইড্রোজেন।
✬ কাঁচ তৈরির প্রধান কাঁচামাল হলো — বালি।
✬ এস আই পদ্ধতিতে তাপের একক — জুল।
✬ তেজস্ক্রিয় পদার্থ নয় — লৌহ।
✬ অ্যামোনিয়াম সালফেট হলো — একটি লবন।
✬ বিলিরুবিন তৈরি হয় — যকৃতে।
✬ বহুকোষী প্রানী নয় — অ্যামিবা।
✬ ন্যানো সেকেন্ড হলো — এক সেকেন্ডের একশত কোটি ভাগের একভাগ।
✬ “থিউরি অব রিলেটিভিটি” এর উদ্ভাবক কে — আলবার্ট আইনস্টাইন।
✬ মৌলিক পদার্থ নয় — ফসফিন।
✬ জিনের রাসায়নিক গঠন উপাদান কে বলা হয় — DNA
✬ সাদা রক্ত বা বর্ণহীন বিশিষ্ট প্রানী — তেলাপোকা।
✬ কোয়ান্টাম তত্ত্ব এর অপর নাম — ফোটন তত্ত্ব।
✬ বায়ুর মাধ্যমে সংক্রামিত হয় — ইনফ্লুয়েঞ্জা।
✬ কণা তত্ত্বের প্রবক্তা — আইজ্যাক নিউটন।
✬ নিউটন আবিষ্কার করেন — চ্যাডউইক।
✬ জৈব রসায়নের জনক — ফ্রেডরিক উহলার।
✬ জটিল অণুবীক্ষণ যন্ত্রে ব্যবহার করা হয় — দুটি উত্তল লেন্স।
✬ কাঁচ তৈরির প্রধান কাঁচামাল হলো — বালি।
✬ অ্যালুমেনিয়াম সালফেটকে চলিত বাংলায় বলে — ফিটকিরি।
✬ মহাশূন্য থেকে আগত রশ্মিকে বলে — কসমিক রশ্মি।
✬ বিদ্যুৎ পরিবাহিতা সবচেয়ে বেশি — রূপার মধ্যে।
✬ রক্তের লোহিত কনিকা তৈরি হয় — অস্থি।
✬ ধানের বাদামী রোগ হয় — ছত্রাক দ্বারা।
✬ পানির জীব হলেও বাতাসে নিঃশ্বাস নেয় — শুশুক।
✬ গ্রীন হাউস গ্যাস নয় — নাইট্রোজেন।
✬ পৃথিবীর নিকটতম গ্রহ কোনটি — মঙ্গল।
✬ শালগাছ বায়ুমণ্ডলে ত্যাগ করে — অক্সিজেন।
✬ চাঁদের উপর সর্বপ্রথম পা রাখেন — নীল আর্মস্ট্রং।
✬ সৌর জগতের সবচেয়ে বড় গ্রহ — বৃহস্পতি।
✬ ওজন স্তর সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে — ক্লোরিন।
✬ ফল পাকানোর জন্য দায়ী — ইথিলিন।
✬ কচু শাকে বেশী থাকে — লৌহ
✬ ভূপৃষ্ঠে সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায় — অক্সিজেন।
✬ অস্থির বৃদ্ধির জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন — ক্যালসিয়াম।
✬ কচু খেলে গলা চুলকায় কারন কচুতে থাকে — ক্যালসিয়াম অক্সালেট।
✬ মোটামুটি সম্পূর্ণ বা আদর্শ খাদ্য বলা হয় — দুধকে।
✬ অ্যানথ্রাক্স রোগের টিকা আবিস্কার করেন — লুই পাস্তুর।
✬ এশিয়ার দক্ষিণভাগ দিয়ে গিয়েছে — কর্কটক্রান্তি রেখা।
✬ বস্তুর আপেক্ষিক ভর আবিষ্কার করেন — আর্কিমিডিস।
✬ প্রানী জগতের উৎপত্তি ও বংশ সম্বন্ধীয় বিদ্যাকে বলে — ইভোলিউশন।
✬ গতিবিদ্যার জনক — গ্যালিলিও।
✬ দুধে থাকে — ল্যাকটিক এসিড।
✬ দূরত্বের সবচেয়ে বড় একক — আলোকবর্ষ।
✬ এক আলোকবর্ষ = ৯.৪৬১ × ১০ কিমি।
✬ সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল — জিপসাম।
✬ কৃত্রিম জিন আবিষ্কার করেন — হরগোবিন্দ খোরানা।

বিজ্ঞান বিষয়ক সাধারন জ্ঞান

✬ সর্বাপেক্ষা হালকা গ্যাস — হাইড্রোজেন।
✬ মহাজাগতিক রশ্মির আবিষ্কারক — হেস।
✬ পৃথিবীর ঘূর্ণনের ফলে আমরা ছিটকে পড়ি না কারন — মধ্যাকর্ষণ বলের জন্য।
✬ সংকত ধাতু পিতলের উপাদান — তামা ও দস্তা।
✬ আলটিমিটার — উচ্চতা পরিমাপক যন্ত্র।
✬ বিদ্যুৎ পরিবাহী নয় — রাবার।
✬ ডায়নামো — যান্ত্রিক শক্তিকে বিদ্যুৎ শক্তিতে রূপান্তরের যন্ত্র।
✬ কাজের একক — জুল।
✬ বৈদ্যুতিক বাল্ব আবিষ্কার করেন — টমাস আলভা এডিসন।
✬ সূর্য থেকে পৃথিবীতে শব্দ আসতে সময় লাগে — ৮.৩২ মিনিট।
✬ টেলিফোনের আবিস্কারক — আলেকজান্ডার গ্রাহাম বেল।
✬ ভূমিকম্প মাপার যন্ত্র — সিসমোগ্রাফ বা সিসমোমিটার।
✬ বাতাসের আদ্রতা পরিমাপ যন্ত্র — হাইগ্রোমিটার।
✬ পানিকে বরফে পরিনত করলে এর আয়তন — বাড়ে।
✬ শীতকালে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ — কম থাকে।
✬ উড়োজাহাজের গতি নির্ণায়ক যন্ত্র — ট্যাকোমিটার।
✬ আন্তর্জাতিক পদ্ধতিতে তাপমাত্রার একক’কে বলে — কেলভিন।
✬ জন্ডিসে আক্রান্ত হয় — যকৃত।
✬ চুম্বকে পরিণত করা যায় — ইস্পাত।
✬ ভারী পানির রাসায়নিক সংকেত — D2O
✬ চা তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয় — কালো রঙের কাপে।
✬ লোহাকে গ্যালভানাইজিং করতে ব্যবহৃত হয় — দস্তা।
✬ ধাতু স্বাভাবিক তাপমাত্রায় তরল — পারদ।
✬ শব্দের গতি সবচেয়ে বেশি — কঠিন মাধ্যমে।
✬ লাল ও সবুজ রং মিশিয়ে পাওয়া যায় — হলুদ রং।
✬ লোহার প্রধান আকরিক হলো — হেমাটাইট।
✬ “জলাতঙ্ক” এর ভাইরাস হলো — র‌্যাবিস ভাইরাস।
✬ সবুজ কাচ পাওয়া যায় — ক্রোমিয়াম থেকে।
✬ আমিষের সহজলভ্য উৎস হলো — চীনাবাদাম।
✬ সকল সম্পূরক উদ্ভিদ — স্বভোজী।
✬ ” গলগন্ড” রোগ হয় — আয়োডিনের অভাবে।
✬ ভাইরাস একটি — অকোষীয় জীব।
✬ দুধের রং সাদা হয় — কার্বোহাইড্রেটের জন্যে।
✬ নিউটন হলো — বলের একক।
✬ একক সময়ে শব্দ যে দুরত্ব অতিক্রম করে তাকে বলে — শব্দের গতি।
✬ শব্দ বিস্তারের জন্য প্রয়োজন হয় — বায়বীয় মাধ্যমের।

✬ রঙ্গিন টেলিভিশন থেকে ক্ষতিকর যে রশ্মি নির্গত হয় — গামা রশ্মি।
✬ উষ্ণতার একক পরিমাপ করা হয় — কেলভিন।
✬ সূর্য রশ্মি কি গতিতে গমন করে — সেকেন্ডে 1,86,000 মাইল বেগে।
✬ সমুদ্র নীল দেখানোর কারন হলো — আপতিত সূর্য রশ্মির বিক্ষেপন।
✬ জেনেরেটরে উৎপাদিত কারেন্টকে বৃদ্ধি করে — কয়েলে পেঁচ সংখ্যা বৃদ্ধি করে।
✬ চুম্বকের আকর্ষন বেশি — দুই মেরুতে।
✬ প্যাসকেলের সূত্রটি প্রযোজ্য — তরল ও বায়বীয় পদার্থের ক্ষেত্রে।
✬ দুটি স্বচ্ছ মাধ্যমের বিভেদ তলে আলোকরশ্মির দিক পরিবর্তনের ঘটনাকে বলে — প্রতিসরণ।
✬ 20° সেন্টিগ্রেড সমান কত ডিগ্রি ফারেনহাইট — 68° F
✬ স্যাকারিন প্রস্তুত করা হয় — টলুইন হতে।
✬ যে ধাতু বিশ্লেষণ করা যায় না তাকে বলে — মৌলিক ধাতু।
✬ উদ্ভিদের সালোসংশ্লেষণে কাজ করে — ক্লোরোফিল।
✬ যক্ষ্মা রোগের জীবাণু আবিষ্কার করেন — রবার্ট কচ।
✬ ক্লোরোফিল অণুর উপাদান হলো — ম্যাগনেসিয়াম।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য – প্রশ্ন ও উত্তর
০১. কম্পিউটার আবিস্কার করেন কে ?
উত্তর:- হাওয়ার্ড আইকেন।

০২. আধুনিক কম্পিউটারের জনক কে ?
উত্তর:- চার্লস ব্যাবেজ।

০৩. বিশ্বের প্রথম কম্পিউটার পোগ্রামার কে ?
উত্তর:- লেডে অ্যাডা অগাস্টা।

০৪. মাইক্রোসফট করপোরেশনের প্রতিষ্ঠাতার নাম কি ?
উত্তর:- বিল গেটস।

০৫. কত সালে সর্বপ্রথম মিনি কম্পিউটার আবিস্কার হয় ?
উত্তর:- 1964 সালে।

০৬. বিশ্বের প্রথম মিনি কম্পিউটারের নাম কি ?
উত্তর:- পিডিপি-1।

০৭. ফেইসবুকের প্রধান নির্বাহীর নাম কি?
উত্তর:- মার্ক জুকেরবার্গ।

০৮. ব্রডব্যান্ড গতিতে শীর্ষে রয়েছে কোন দেশ ?
উত্তর:- দক্ষিণ কোরিয়া।

০৯. বাংলাদেশে প্রচলিত প্রথম কম্পিউটারের নাম কি ?
উত্তর:- আইবিএম 1620।

১০. কম্পিউটারে বাংলা লেখার প্রথম সফটওয়্যারের নাম কি ?
উত্তর:- শহীদলিপি।

১১. কম্পিউটারে বাংলা লেখার প্রথম সফটওয়্যারের ডেভলপারকে ?
উত্তর:- সাইফুদ্দোহা শহীদ।

১২. চীনে নতুন চালু হওয়া সার্চ ইঞ্জিনের নাম কি ?
উত্তর:- গুজি।

১৩. বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর কোন দেশে ?
উত্তর:- চীন।

১৪. আইফোন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের নাম কি ?
উত্তর:- অ্যাপল ইঙ্ক।

১৫. এমপিথ্রি ফাইল ফরম্যাট উদ্ভাবকের নাম কি ?
উত্তর:- ডাগফিন ব্যাচ।

১৬. কাসপারস্কি ল্যাবের প্রতিষ্ঠাতার নাম কি ?
উত্তর:- ইউজিনি ক্যাসপারস্কি।

১৭. ফ্লাশ প্লেয়ার তৈরি প্রতিষ্ঠানের নাম কি ?
উত্তর:- অ্যাডব।

১৮. গুগলের মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমের নাম কি ?
উত্তর:- এনড্রয়েড।

১৯. বাংলাদেশে প্রথম ইন্টারনেট সুবিধা আসে কোন সালে ?
উত্তর:- ১৯৯৬ সালের ৬ জুন।

২০. বাংলাদেশে প্রথম মোবাইল সুবিধা আসে কোন সালে ?
উত্তর:- ১৯৯৩ সালের এপ্রিল মাসে।

২১. বাংলাদেশে নির্মাণাধীন আইসিটি পার্কের অবস্থান কোথায় ?
উত্তর:- গাজীপুরের কালিয়াকৈর।

২২. বাংলাদেশে আইসিটি ইনকিউবেটর কোথায় অবস্থিত ?
উত্তর:- ঢাকার কারওয়ান বাজারে।

২৩. ত্রিমাত্রিক চ্যানেলে প্রথম সরাসরি ফুটবল ম্যাচ সম্প্রচার করা হয়েছে কোন দেশে ?
উত্তর:- যুক্তরাজ্য।

২৪. বিশ্বে সর্বপ্রথম যে কম্পিউটার তৈরি করা হয় তাতে মেমরি হিসাবে কি ছিল ?
উত্তর:- পাঞ্চ কার্ড(যা ছিল রিড অনলি) ব্যবহার করা হয়েছিল।

২৫. স্কাইপ কি ধরনের সার্ভিস ?
উত্তর:- ইন্টারনেটভিত্তিক টেলিফোন সার্ভিস।

২৬. বিশ্বের সবচেয়ে হালকা মোবাইলের ওজন কত ?
উত্তর:- ৪০ গ্রাম।

২৭. উইন্ডোজ সেভেন ব্যবহার করা যাবে কয়টি ভাষায় ?
উত্তর:- ৫৯টি ভাষায়।

২৮. বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কম্পিউটার বাজার কোথায় ?
উত্তর:- (বিসিএস কম্পিউটার সিটি)- ঢাকার আগারগাঁওয়ে।

২৯. বাডা অপারেটিং সিস্টেমের প্রথম হ্যান্ডসেটের নাম কি ?
উত্তর:- স্যামসাং ওয়েভ এস-৮৫০০।

প্রযুক্তি সম্পর্কে ১০০টি তথ্য জানুন :

১. তথ্যের ক্ষুদ্রতম একক – ডেটা
২. ডেটা শব্দের অর্থ – ফ্যাক্ট
৩. বিশেষ প্রেক্ষিতে ডেটাকে অর্থবহ করাই – ইনফরমেশন
৪. তথ্য = উপাত্ত + প্রেক্ষিত + অর্থ
৫. তথ্য বিতরণ, প্রক্রিয়াকরণ ও সংরক্ষণের সাথে যুক্ত – তথ্য প্রযুক্তি
৬. ICT in Education Program প্রকাশ করে – UNESCO
৭. কম্পিউটারের ভেতর আছে – অসংখ্য বর্তনী
৮. তথ্য সংরক্ষণ, বিশ্লেষণ এবং উৎপাদন করে – কম্পিউটার
৯. কম্পিউটার গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে – ৪টি

১০. মনো এফএম ব্যান্ড চালু হয় – ১৯৪৬ সালে
১১. স্টেরিও এফএম ব্যান্ড চালু হয় – ১৯৬০ সালে
১২. সারাবিশ্বে এফএম ফ্রিকুয়েন্সি 87.5-108.0 Hz
১৩. Radio Communication System এ ব্রডকাস্টিং – ৩ ধরণের
১৪. PAL এর পূর্ণরূপ – Phase Alternation by Line
১৫. দেশে বেসরকারি চ্যানেল -৪১টি
১৬. পৃথিবীর বৃহত্তম নেটওয়ার্ক – ইন্টারনেট
১৭. ইন্টারনেট চালু হয় – ARPANET দিয়ে (১৯৬৯)
১৮. ARPANET চালু করে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ
১৯. ইন্টারনেট শব্দটি চালু হয় – ১৯৮২ সালে

২০. ARPANETএ TCP/IP চালু হয় – ১৯৮৩ সালে
২১. NSFNET প্রতিষ্ঠিত হয় – ১৯৮৬ সালে
২২. ARPANET বন্ধ হয় – ১৯৯০ সালে
২৩. সবার জন্য ইন্টারনেট উন্মুক্ত হয় – ১৯৮৯ সালে
২৪. ISOC প্রতিষ্ঠিত হয় – ১৯৯২ সালে
২৫. বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী প্রায় ৫কোটি ২২লাখ (৩২%)
২৬. ইন্টারনেটের পরীক্ষামূলক পর্যায় ১৯৬৯-১৯৮৩
২৭. টিভি – একমূখী যোগাযোগ ব্যবস্থা
২৮. “Global Village” ও “The Medium is the Message” এর উদ্ভাবক – মার্শাল ম্যাকলুহান (১৯১১-১৯৮০)
২৯. The Gutenberg : The Making Typographic Man প্রকাশিত হয় – ১৯৬২ সালে

৩০. Understanding Media প্রকাশিত হয় – ১৯৬৪ সালে
৩১. বিশ্বগ্রামের মূলভিত্তি – নিরাপদ তথ্য আদান প্রদান
৩২. বিশ্বগ্রামের মেরুদণ্ড – কানেকটিভিটি
৩৩. কম্পিউটার দিয়ে গাণিতিক যুক্তি ও সিদ্ধান্তগ্রহণমূলক কাজ করা যায়
৩৪. বর্তমান বিশ্বের জ্ঞানের প্রধান ভান্ডার – ওয়েবসাইট
৩৫. EHRএর পূর্ণরুপ – Electronic Heath Records
৩৬. অফিসের সার্বিক কার্যক্রম স্বয়ংক্রিয় করাকে বলে – অফিস অটোমেশন
৩৭. IT+Entertainment = Xbox
৩৮. IT+Telecommunication = iPod
৩৯. IT+Consumer Electronics= Vaio

৪০. কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা থাকবে – ৫ম প্রজন্মের কম্পিউটারে
৪১. কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগের জন্য ব্যবহার করা হয় – প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ

৪২. রোবটের উপাদান- Power System, Actuator, Sensor, Manipulation
৪৩. PCB এর পূর্ণরূপ – Printed Circuit Board
৪৪. খ্রিষ্টপূর্ব ২৫০০ সালে ত্বকের চিকিৎসায় শীতল তাপমাত্রা ব্যবহার করতো – মিশরীয়রা
৪৫. নেপোলিয়নের চিকিৎসক ছিলেন – ডমিনিক জ্যা ল্যারি
৪৬. মহাশূন্যে প্রেরিত প্রথম উপগ্রহ – স্পুটনিক-১
৪৭. চাঁদে প্রথম মানুষ পৌঁছে – ২০জুলাই, ১৯৬৯ সালে
৪৮. MRP এর পূর্ণরুপ – Manufacturing Resource Planning
৪৯. UAV উড়তে সক্ষম ১০০ কি.মি. পর্যন্ত

৫০. GPS এর পূর্ণরুপ – Global Positioning System
৫১. ব্যক্তি সনাক্তকরণে ব্যবহৃত হয় -বায়োমেট্রিক পদ্ধতি
৫২. হ্যান্ড জিওমেট্রি রিডার পরিমাপ করতে পারে – ৩১০০০+ পয়েন্ট
৫৩. আইরিস সনাক্তকরণ পদ্ধতিতে সময় লাগে -১০-১৫ সেকেন্ড
৫৪. Bioinformatics শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন – Paulien Hogeweg
৫৫. Bioinformatics এর জনক – Margaret Oakley Dayhaff
৫৬. এক সেট পূর্নাঙ্গ জীনকে বলা হয় – জিনোম
৫৭. Genetic Engineering শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন – Jack Williamson l
৫৮. রিকম্বিনান্ট ডিএনএ তৈরি করেন – Paul Berg(1972)
৫৯. বিশ্বের প্রথম ট্রান্সজেনিক প্রাণি- ইঁদুর (1974)

৬০. বিশ্বের প্রথম Genetic Engineering Company – Genetech(1976)
৬১. GMO এর পূর্ণরুপ – Genetically Modified Organism
৬২. পারমানবিক বা আনবিক মাত্রার কার্যক্ষম কৌশল – ন্যানোটেকনোলজি

৬৩. অনুর গঠন দেখা যায় – স্ক্যানিং টানেলিং মাইক্রোস্কোপে
৬৪. Computer Ethics Institute এর নির্দেশনা – ১০টি
৬৫. ব্রেইল ছাড়া অন্ধদের পড়ার পদ্ধতি – Screen Magnification / Screen Reading Software
৬৬. যোগাযোগ প্রক্রিয়ার মৌলিক উপাদান – ৫টি
৬৭. ট্রান্সমিশন স্পিডকে বলা হয় – Bandwidth
৬৮. Bandwidth মাপা হয় – bps এ
৬৯. ন্যারো ব্যান্ডের গতি 45-300 bps

৭০. ভয়েস ব্যান্ডের গতি 9600 bps
৭১. ব্রডব্যান্ডের গতি- 1 Mbps
৭২. ক্যারেক্টার বাই ক্যারেক্টার ট্রান্সমিশন- এসিনক্রোনাস
৭৩. সিনক্রোনাস ট্রান্সমিশনে প্রতি ব্লকে ক্যারেক্টার ৮০-১৩২টি
৭৪. ডাটা ট্রান্সমিশন মোড- ৩ প্রকার
৭৫. একদিকে ডাটা প্রেরণ- সিমপ্লেক্স মোড
৭৬. উভয় দিকে ডাটা প্রেরণ, তবে এক সাথে নয়- হাফ ডুপ্লেক্স মোড
৭৭. একই সাথে উভয় দিকে ডাটা প্রেরণ – ফুল ডুপ্লেক্স মোড
৭৮. ক্যাবল তৈরি হয়- পরাবৈদ্যুতিক(Dielectric) পদার্থ দ্বারা
৭৯. Co-axial Cable এ গতি 200 Mbps পর্যন্ত

৮০. Twisted Pair Cable এ তার থাকে- 4 জোড়া
৮১. Fiber Optic- Light signal ট্রান্সমিট করে
৮২. মাইক্রোওয়েভের ফ্রিকুয়েন্সি রেঞ্জ 300 MHz – 30 GHz
৮৩. কৃত্রিম উপগ্রহের উদ্ভব ঘটে- ১৯৫০ এর দশকে
৮৪. Geosynchronous Satellite স্থাপিত হয়- ১৯৬০ এর দশকে
৮৫. কৃত্রিম উপগ্রহ থাকে ভূ-পৃষ্ঠ হতে ৩৬০০ কি.মি. উর্ধ্বে
৮৬. Bluetooth এর রেঞ্জ 10 -100 Meter
৮৭. Wi-fi এর পূর্ণরুপ- Wireless Fidelity
৮৮. Wi-fi এর গতি- 54 Mbps
৮৯. WiMax শব্দটি চালু হয়- ২০০১ সালে

৯০. WiMax এর পূর্ণরুপ- Worlwide Interoperabilty for Microwave Access
৯১. ৪র্থ প্রজন্মের প্রযুক্তি- WiMax
৯২. WiMax এর গতি- 75 Mbps
৯৩. FDMA = Frequency Division Multiple Access
৯৪. CDMA = Code Division Multiple Access
৯৫. মোবাইলের মূল অংশ- ৩টি
৯৬. SIM = Subscriber Identity Module
৯৭. GSM = Global System for Mobile Communication
৯৮. GSM প্রথম নামকরণ করা হয়- ১৯৮২ সালে
৯৯. GSM এর চ্যানেল- ১২৪টি (প্রতিটি 200 KHz)
১০০. GSM এ ব্যবহৃত ফ্রিকুয়েন্সি- 4 ধরনের

সাধারণ জ্ঞান – বিজ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর পর্ব – ১

সাধারণ জ্ঞান – বিজ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর পর্ব – ২

Check Also

পুলিশ সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান Pdf

বাংলাদেশ পুলিশ MCQ সাধারণ জ্ঞান:  প্রশ্ন: ২৫ মার্চ ১৯৭১ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রথম সশস্ত্র …

Leave a Reply

Your email address will not be published.