রবিবার , জানুয়ারী 29 2023

স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া, তিনতলা থেকে ছেলেকে ছুড়ে মারলেন বাবা

এবার স্ত্রীর সঙ্গে ব্যাপক ঝগড়ার পর নিজের দুই বছর বয়সী ছেলেকে বাসার তিন তলার বারান্দা থেকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছেন বাবা। পরে ওই ব্যক্তিও সেখান থেকে লাফ দেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করার পর বাবা-ছেলেকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। গত শুক্রবারে ১৬ ডিসেম্বর রাতে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির কালকাজির বস্তি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মান সিংয়ের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার ১৭ ডিসেম্বর দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এসব তথ্য নিশ্চিত করে। এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়ে মতবিরোধের জেরে কয়েক মাস ধরে আলাদা থাকছিলেন মান সিং ও তার স্ত্রী পূজা। দুই সন্তানকে নিয়ে কালকাজিতে নিজের দাদির বাড়িতে থাকেন পূজা।

এদিকে পুলিশ বলছে, শুক্রবার রাতে মান সিং সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতে আসেন। সেসময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তুমুল তর্ক-বিতর্ক হয়। একপর্যায়ে রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে মান সিং তার ২ বছর বয়সী ছেলেকে বারান্দায় নিয়ে যান ও ২১ ফুট উপর থেকে ফেলে দেন। পরে তিনিও লাফ দেন। এ সময় পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় বাসিন্দারা বাবা-ছেলেকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নয়াদিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সেসে (এআইআইএমএস) ভর্তি করান।

এ বিষয়ে দিল্লি পুলিশ জানায়, এ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। মান সিংয়ের বিরুদ্ধে এরই মধ্যে মান সিংয়ের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। তার স্ত্রী পূজাও একটি গৃহস্থ্য হিংসার মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে পূজার দাদি ও প্রতিবেশীরা জানান, প্রায়ই মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরে স্ত্রী ও সন্তানদের মারধর করতেন মান সিং। স্ত্রী-সন্তানদের ঠিকমতো খেতে দিতেও পারতেন না তিনি। স্বামীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে, দাদির বাড়িতে বসবাস শুরু করেন পূজা। কিন্তু সেখানে গিয়েও অনাকাঙ্ক্ষিত কাণ্ড করে বসেন মান সিং। কোলের বাচ্চাকে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকতে দেখে একেবারে ভেঙে পড়েছেন মা। সূত্র: এনডিটিভি।

Check Also

৮৮তম বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ৬১ বছর বয়সী বৃদ্ধ

মাত্র ১৪ বছর বয়সেই প্রথম বিয়ের পিড়িতে বসেছিলেন তিনি। এরই মাঝে জীবনের ৬১ টি বছর …