ময়লার ঝুড়ি থেকে কেটে নেয়া পুরু-ষাঙ্গ বের করে দেন স্ত্রী

রাজশাহী নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার মালোপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ইফতেখার আল-আমিনের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছেন তার স্ত্রী। এ ঘটনার পর ইফতেখারকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা গুরুতর। তাকে রাজশাহী থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।

এদিকে, স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলায় স্ত্রী রুপসী দেওয়ানকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরীর সাগরপাড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় এসআই স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলে তার স্ত্রী।

হাসপাতালের ২ নং ওয়ার্ডে কর্মরত চিকিৎসক আহমেদ উল্লাহ জানান, তার পুরুষাঙ্গ শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ জন্য অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। রোগীর অবস্থা ভালো না। তাই তাকে ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। রাত ৮টার দিকে তাকে নিয়ে হাসপাতালের এম্বুলেন্সে ঢাকার উদেশ্যে রওনা হয়।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, বিকেলে এসআই ইফতেখার আল-আমিন ভাড়া বাসায় ঘুমিয়ে ছিলেন। পারিবারিক কলহের জের ধরে তার স্ত্রী ধারালো অস্ত্র দিয়ে পুরুষাঙ্গ কেটে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরী বিভাগে ভর্তি করে। সেখান থেকে তাকে নেয়া হয় হাসপাতালের ২ নম্বর ওয়ার্ডে। অবস্থার অবনতি হলে নেয়া হয় অপারেশন থিয়েটারে।

ওসি বলেন, রুপসী দেওয়ান স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়ার কথা স্বীকার করেছেন এবং বাসার ময়লার ঝুড়ি থেকে সেটি বের করে দেন। তার দাবি, তার স্বামী একাধিক নারীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। সে ক্ষোভ থেকে তিনি এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

ওসি আরও বলেন, রুপসীকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। প্রচলিত আইনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান ওসি।
©️

About admin

আমার পোস্ট নিয়ে কোন প্রকার প্রশ্ন বা মতামত থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন অথরা মেইল করতে পারেন admin@sottotv.com এই ঠিকানায়।