রাশিয়াকে মোকাবেলায় ইউক্রেনে সেনা পাঠানো হবে না: ন্যাটো প্রধান

রাশিয়ার আক্রমণ মোকাবেলায় ইউক্রেনে সেনা পাঠানো হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ। রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন তিনি। ন্যাটো প্রধান বলেছেন, ইউক্রেনের ভেতরে কোনো ন্যাটো সেনা নেই। আমরা পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছি যে, ইউক্রেনে ন্যাটো সেনা মোতায়েনের কোনো পরিকল্পনাই আমাদের নেই।

ন্যাটোর সদস্য দেশ নয় ইউক্রেন। তবুও রাশিয়া দেশটিতে আক্রমণ চালালে ন্যাটো সেনাদের ইউক্রেনে মোতায়েন করা হবে কিনা এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে ন্যাটোর মহাসচিব জানান, তেমন পরিকল্পনা নেই। তিনি বলেন, ইউক্রেনে ন্যাটো সেনা মোতায়েনে আমাদের কোনো পরিকল্পনা নেই। আমরা সহায়তার দিকেই বেশি মনোযোগ দিচ্ছি।

এদিন স্টলটেনবার্গ অভিযোগ করেন, রাাশিয়া ইউক্রেনে যুদ্ধ শুরু করে ইউরোপ মহাদেশের শান্তি নষ্ট করেছে। তিনি বলেন, রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করেছে। এটি নৃশংস যুদ্ধকর্ম। ইউক্রেনের সাহসী জনগণের জন্য আমাদের সমবেদনা। ন্যাটো প্রধান বলেন, আমাদের মহাদেশের শান্তি ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে গেছে। এটি ইচ্ছাকৃত, ঠান্ডা মাথার দীর্ঘ-পরিকল্পিত আক্রমণ। রাশিয়া শক্তি খাটিয়ে ইতিহাস নতুন করে লিখতে চায়।

ইউক্রেন পশ্চিমা প্রতিরক্ষা জোটের অংশীদার হলেও ন্যাটোর সদস্য নয়। তবে তারা দীর্ঘদিন থেকে পশ্চিমা এই সামরিক জোটে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার চেষ্টা করছে। ন্যাটোর পক্ষ থেকেও ইউক্রেনকে বহুবার আশ্বাস্ত করা হয়েছে। কিন্তু সাবেক সোভিয়েত দেশটির ন্যাটো সদস্য হওয়াকে নিজেদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে মনে করছে রাশিয়া। আর তা ঠেকাতেই মূলত কিয়েভ প্রশাসনের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে মস্কো। সূত্র: রয়টার্স, এবিসি নিউজ

About admin

Check Also

সম্পর্কের পর বাতি জ্বালাতেই দেখেন অন্য কেউ!