বিশ্বকাপে প্রথম দশ গোলের জন্য ১০টি নাচ তৈরি করেছে ব্রাজিল খেলোয়াড়রা

চলতি কাতার বিশ্বকাপে প্রথম ১০ গোলের জন্য আলাদা আলাদা ১০ রকমের নাচ তৈরি করে এনেছে ব্রাজিল খেলোয়াড়রা। এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন ব্রাজিল ফরোয়ার্ড রাফিনহা। তাইতো এবারের বিশ্বকাপে সেলেসাওদের গোল উদযাপনের অন্যতম আকর্ষণ থাকবে নেইমার-রাফিনহাদের নাচ। এক এক গোলের পর এক এক নাচ। ব্রাজিল দল শুধু নিজেদের পারফর্মেন্সেই বিখ্যাত নয়, সাথে আছে তাদের বিখ্যাত সাম্বা ডান্সে গোল উদযাপন।

এবারের বিশ্বকাপেও দেখা যাবে নেইমারদের নাচ। সেলেসাওদের অন্যতম স্ট্রাইকার রাফিনহা এক সাক্ষাৎকারে জানান, বিশ্বকাপের গোল উদযাপন করতে ১০টি নাচ তৈরি করে এনেছেন তারা। ব্রাজিলের প্রথম ১০টি গোলে দেখা যাবে আলাদা আলাদা নাচ। যদি ব্রাজিল ১০টার বেশি গোল করে তাহলে নতুন করে নাচ বানাতে হবে।

এদিকে বিশ্বকাপে খেলাই সব থেকে বড় স্বপ্ন ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমার জুনিয়রের। শুধু নেইমারই না, দলের সব খেলোয়াড়দের ক্যারিয়ারে সব থেকে বড় পাওয়া বিশ্বকাপে খেলতে পারা। তাইতো আসরের সাফল্যগুলো আলাদাভাবে রাঙিয়ে রাখতে চায় সেলেসাওরা। সেই জন্য এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন তাদের।

এ সময় রাফিনহা জানান, এমন গোল উদযাপন শেষ ম্যাচ পর্যন্ত করতে চান তারা। আর ফাইনাল শেষে উঁচিয়ে ধরতে চান ট্রফি।

এভাবে আসর শুরু হবে আমরা প্রত্যাশা করিনি, এটা বড় ধাক্কা: মেসি

নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে আর্জেন্টিনা হারবে এমনটা বোধহয় খুব কম লোকই ভেবেছিলেন। সৌদি আরবের খেলোয়াড়-ভক্তরাও রূপকথা লেখার স্বপ্ন দেখেছিল কিনা সন্দেহ। কিন্তু ফিফা বিশ্বকাপ তো এমনই! মুহূর্তে ঘটে যায় অনেক কিছু। লওতারো মার্টিনেজ বলেছেন, এমন শুরুর প্রত্যাশা তারা করেননি। লিওনেল মেসিও বলেছেন, অপ্রত্যাশিত শুরু।

গতকাল ম্যাচ শেষে বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা ও আর্জেন্টিনার স্বপ্নসারথী ‘অজুহাত’ দিতে পারতেন। তিনটি গোল অফসাইডে বাতিল হওয়া, কাতারের মতো গরম দেশে তাদের ম্যাচ স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় ফেলানোর সমালোচনা করতে পারতেন তিনি। কিন্তু মেসি বলেছেন, কোন অজুহাত নয়।

এদিকে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক মেসি বলেছেন, ‘কোন অজুহাত দেব না। আমাদের পূর্বের চেয়েও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এই দলটা শক্তিশালী, সেটা পূর্বে দেখিয়েছে। এটা এমন এক পরিস্থিতি যার মধ্যে দিয়ে আমরা অনেক দিন যাইনি। এখন আমাদের দেখাতে হবে যে, আমরা প্রকৃত অর্থেই একটা দল।’

আর্জেন্টিনা ১৯৯০ সালের পর বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হারেনি। লিওনেল মেসি পঞ্চম বিশ্বকাপ খেলছেন। ফাইনালে খেলার অভিজ্ঞতা আছে তার। দ্বিতীয় রাউন্ডে বিদায়ের কষ্টও আছে। তবে পূর্বে কখনও গ্রুপ পর্বে তিনি বিদায় নেননি। এর আগে ২০০২ আসরে গ্রুপ পর্বে বিদায় নিয়েছিল আলবিসেলেস্তেরা। ওই শঙ্কা কিছুটা ফিরে আসছেই।

এদিকে মেসি বলেছেন, সবকিছুই এখন তাদের খেলার ওপরই নির্ভর করছে, ‘এটা সকলের জন্যই খুবই বড় এক ধাক্কা। এভাবে আসর শুরু হবে আমরা প্রত্যাশা করিনি। এমন কিছু অনেক সময় ঘটে যায়। আমাদের সামনে যা অপেক্ষা করছে তার জন্য প্রস্তুত হতে হবে। দুই ম্যাচেই আমাদের জিততে হবে এবং সেটা আমাদের খেলার ওপরই নির্ভর করছে।’

সামনে আর্জেন্টিনা আপন গতিতে ফিরে আসবে: জায়েদ খান

চলতি কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চরম হোঁচট খেয়েছে আসরের অন্যতম টপ ফেভারিট আর্জেন্টিনা। অপেক্ষাকৃত দুর্বল সৌদি আরবের কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মেসির দল। এই ম্যাচে হারের পর সামাজিক মাধ্যমে আর্জেন্টিনাকে নিয়ে চলছে নানান সমালোচনা।

তবে আবারও আর্জেন্টিনা আপন গতিতে ফিরে আসবে বলে আশাবাদী ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়ক, আর্জেন্টিনাভক্ত জায়েদ খান। গতকাল ম্যাচ শেষে এই নায়ক বলেন, ‘সামনে আর্জেন্টিনা তার আপন গতিতে ফিরে আসবে এটাই প্রত্যাশা।’ একটি টিভি শোতে গিয়ে এমন মন্তব্য করেন জায়েদ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন উপস্থাপিকা শ্রাবণ্য তৌহিদা ও মৌসুমী মৌ।

এর আগে আর্জেন্টিনার জার্সি পরে বল হাতে জায়েদ ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘আর্জেন্টিনার জন্য শুভ কামনা। ছোটবেলা থেকেই ম্যারাডোনার কারনে এই দলের প্রতি ভালোবাসা। এই দলের জার্সি ছাড়া কোনো দলের জার্সি কখনও গায়েও দেইনি। এইবারের বিশ্বকাপে সুন্দর খেলা উপহার দিবে এটাই প্রত্যাশা।’

এদিকে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের প্রথম অর্ধে আর্জেন্টিনা সৌদি আরবের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল। এ সময় অফসাইডের ফাঁদে পড়ে নষ্ট হয় তাদের ৩টি গোল। মূলত সেখান থেকেই মনোবল ভেঙে যায় দলটির। দ্বিতীয় অর্ধে আরবের দেশটির কৌশলের কাছে ধরাশায়ী হয় ল্যাটিন আমেরিকার দেশটি। পরপর ২ গোল হজজ করার কর সেটি আর শোধ দিতে পারেনি তারা। মাঠ ছাড়তে হয় চরম হতাশা নিয়ে।

About admin

আমার পোস্ট নিয়ে কোন প্রকার প্রশ্ন বা মতামত থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন অথরা মেইল করতে পারেন admin@sottotv.com এই ঠিকানায়।