সোমবার , জানুয়ারী 30 2023

আইপিএলের নিলামে তিন টাইগার ক্রিকেটারকে নিয়ে কাড়াকাড়ি হবে: ভারতীয় গণমাধ্যম

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে গেলেও দলের কয়েকজন ক্রিকেটার নজর কেড়েছেন। দারুণ পারফরম্যান্সের ফল তাঁরা পেতে পারেন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) নিলামে। ডিসেম্বরে আইপিএলের ছোট নিলাম হওয়ার কথা রয়েছে, সেখানে তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটারের দিকে নজর থাকবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর।

১। লিটন দাস: বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন লিটন। বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে তাঁর ২৭ বলে ৬০ রানের ইনিংসটি মুগ্ধ করেছে বিরাট কোহলিকেও। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের সাজঘরে গিয়ে লিটনকে নিজের ব্যাট উপহার দিয়েছেন কোহলি। ওপেনিংয়ে নেমে বড় শট খেলার সহজাত দক্ষতা রয়েছে লিটনের। পেসারদের বিরুদ্ধে সামনের পায়ে খেলতে পারেন।

তাছাড়া উপমহাদেশের উইকেটেও সফল এই ডানহাতি ব্যাটার। টি-টোয়েন্টিতে ৬৩টি ম্যাচে ১৩১৮ রান করেছেন লিটন, স্ট্রাইকরেট ১২৬.৪৮। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। অর্থাৎ দলে অতিরিক্ত উইকেটরক্ষক হিসেবে রাখা যেতে পারে তাঁকে। এবারের নিলামে তাঁর দিকে নজর রাখতে পারে দলগুলো।

২। তাসকিন আহমেদ : বল হাতে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নজর কেড়েছেন তাসকিন আহমেদ। তাঁর সঙ্গী মুস্তাফিজুর রহমান আইপিএলে খেললেও এবারের বিশ্বকাপে মুস্তাফিজুরকে ছাপিয়ে গিয়েছেন তাসকিন। তাঁর গতি সামলাতে হিমশিম খেয়েছেন বড় বড় ব্যাটার। বিশ্বকাপে ৮টি উইকেট নিয়েছেন এই পেসার।

তাছাড়া নতুন বলে তাঁর উইকেট নেওয়ার দক্ষতার জন্য তাঁর দিকে নজর দিতে পারে আইপিএলের বেশ কিছু দল। ছোট ফরম্যাটের জন্য তাসকিন খুব ভয়ঙ্কর বোলার। কারণ, চার ওভারই একই গতিতে বল করতে পারেন তিনি। এ ছাড়া ব্যাট হাতেও বড় শট খেলতে পারেন তাসকিন। সেটাও নজরে থাকবে দলগুলোর।

৩। সাকিব আল হাসান : এবারের বিশ্বকাপটা ভালো যায়নি সাকিবের। কিন্তু তাঁর দক্ষতা নিয়ে কারো সন্দেহ নেই। ব্যাট হাতে রান না পেলেও বল হাতে খুব একটা খারাপ খেলেননি তিনি। গত কয়েক বছরে আইপিএলে ধারাবাহিকভাবে খেলা সাকিব সর্বশেষ আসরে দল পাননি। কিন্তু দলের ফাঁক ভরাট করার জন্য তাঁর দিকে তাকাতে পারে দলগুলো। সাকিবের মতো অলরাউন্ডার যেকোনো দলের অন্যতম প্রধান ভরসা।

এদিকে আগামী নিলামে ১০টি ফ্র্যাঞ্চাইজি মিলিয়ে মোট ৯৫ কোটি টাকা নিয়ে নামবে। অর্থাৎ খুব বেশি ক্রিকেটারের দিকে নজর দিতে পারবে না তারা। নিজেদের দু-একটি দুর্বলতা ভরাট করার দিকে নজর দেবে দলগুলো। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের এই ক্রিকেটাররা হতে পারেন ভালো বিকল্প। সূত্র: আনন্দবাজার।

শান্তদের মানসিক ডাক্তার দেখাতে বললেন ওয়াসিম আকরাম

চলমান টি-টয়েন্টি বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হওয়ার লড়াইয়ে গতকাল পাকিস্তানের কাছে ৫ উইকেটে হেরে যায় বাংলাদেশ। এই হারের পেছনে অনেকে সাকিব আল হাসানকে আম্পায়ারের ভুল আউট দেয়াকে কারণ হিসেবে দেখানোর চেষ্টা করলেও, কিংবদন্তি পেসার ওয়াসিম আকরাম বলছেন দায় বাংলাদেশেরই। শুধু দায় দিয়েই বসে থাকেনি, কোথায় এবং কেন তা স্পষ্ট করেই বুঝিয়ে দিয়েছেন। এমনকি বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মানসিক ডাক্তারে শরণাপন্ন হওয়ার প্রয়োজন আছে বলেও মনে করেন তিনি।

এদিকে পাকিস্তানের স্পোর্টস চ্যানেল এ স্পোর্টসের এক আলোচনায় ওয়াসিম আকরাম এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ দলকে তাদের নিজেদেরই দায় নিতে হবে, তাদের নেয়াও উচিত। যদি আমি বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক বা কোচ হতাম, তবে আমি দলের সবাইকে মনোবিদ দেখানো নিশ্চিত করতাম।’

এ সময় ওয়াসিম আকরাম নাজমুল হোসেন শান্তের উদাহরণ টেনে বলেন, ‘শান্ত এক সময় ৫৪ রানে ব্যাট করছিল। তখন দলের অবস্থা ভালো ছিল। আমি ভাবছিলাম, তারা সিঙ্গেল নিয়ে খেললেও ১৬০ করে ফেলবে। কিন্তু শান্ত তখনই ইফতিখারকে উইকেট ছেড়ে বেরিয়ে আজব শট খেলতে গিয়ে বোল্ড হলো। তখন যদি সে সিঙ্গেল নিতে থাকতো তাহলে দলের স্কোর ১৫৫ আরামে হয়ে যেত। তবে এরপর আর কেউ টেকেইনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আপনি যখন দেখবেন অধিনায়ক কোনো বোলারকে ১ ওভারের জন্য নিয়ে আসে, তখন আপনাকে বুঝতে হবে সে উইকেট নিতে এসেছে।’ বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের মানসিকতা ও তাদের ভুল বোলারকে ভুল শট খেলার পরিকল্পনা নিয়েও কথা বলেন ওয়াসিম।

এদিন শাহীন শাহ আফ্রিদি ভালো বল করছে দেখার পরও তাকে লক্ষ্য করেই আক্রমণ করার সমালোচনা করে সুইং সুলতান বলেন, ‘দলের মূল বোলারের বিপক্ষে আপনি তখন শট খেলবেন না, সেই ওভারে স্ট্রাইক রোটেট করবেন। তবে তারা ঠিক করলো আমাদের মারতে হবে, শাহীন শাহ আফ্রিদিকেই মারতে হবে। আর কাউকেই মারবো না!’

Check Also

ব্রেকিং নিউজ: একাধিক চমক দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করলো বিসিবি

অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে …